বাসর রাতের ভিডিও করে স্বামীর ভয়ঙ্কর প্রতারণা













নিজেদের যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক বলে পরিচয় দিতেন। স্বপ্ন দেখাতেন লন্ডনে নিয়ে যাওয়ার। এভাবে অবিবাহিত তরুণীদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলতেন। এক সময় বিয়ে করতেন। বিয়ের পর বাসর রাতের ভিডিও করতেন স্বামী। আর সেই ভিডিও নিয়েই চলত ভয়ঙ্কর প্রতারণা।

বাসর রাতের সেই ভিডিওচিত্র প্রকাশের হুমকি দিয়ে এসব তরুণীদের মাদকদ্রব্য সরবরাহের

মতো অবৈধ কাজ করতে বাধ্য করা হতো। যৌন কাজ করতে বাধ্য করা হতো। চালানো হতো যৌন নির্যাতন। এই ঘটনা ঘটেছে পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের মিরপুরে।

স্থানীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরা হয়। এই কায়দায় ১৫ জনেরও বেশি তরুণীর সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে বলে এনডিটিভির খবর প্রকাশ হয়।

প্রতারক চক্রের নেতৃত্বে ছিলেন মুমতাজ নামের এক ব্যক্তি। তিনি নিজেকে ব্রিটিশ-পাকিস্তানি বলে পরিচয় দিতেন। বিয়ের পর এই প্রতারক চক্রের সদস্যরা সদ্য বিবাহিত স্ত্রীদের যুক্তরাজ্যে নিয়ে যেতে অস্বীকৃতি জানাতেন। কোনো তরুণী তালাক চাইলে দেয়া হতো না। বরং তাদের বিরুদ্ধে চুরির মিথ্যা মামলা দেয়া হতো। অভিযুক্তরা বর্তমানে পলাতক আছে।