শাকিব খানের এবারের ঈদ কেমন কাটছে?













ঈদে চলচ্চিত্র পাড়ায় বাড়তি আমেজ লক্ষ্য করা যায়। সিনেমাপ্রেমীদের মধ্যেও থাকে ঈদের সিনেমা নিয়ে আগ্রহ। ঈদের সিনেমা মানেই ক্ষমতাসীন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান, জনপ্রিয় শিল্পী, বেশি বাজেট, বেশি প্রচারণা- সব কিছুই যেন একটু বেশি। ঈদে কোন কোন সিনেমা মুক্তি পাবে, তা নিয়ে কয়েক মাস আগে থেকেই শুরু হয় তোড়জোড়। মুক্তির মিছিলে থাকে প্রায় ডজনখানেক সিনেমা। গত কয়েক বছর ধরেই লক্ষ্য করা যাচ্ছে, এ দৌঁড়ে এগিয়ে থাকেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। তার অভিনীত একাধিক সিনেমা ঈদে মুক্তি পায়। শাকিব খানের সিনেমা মানেই দর্শক ও হল মালিকদের বাড়তি আগ্রহ। এবারো এ আগ্রহে ভাটা পড়েনি।

২০০৬ সালে ঈদুল ফিতরে মুক্তি পেয়েছে ‘ঢাকাইয়া পোলা বরিশাইলা মাইয়া’। ২০১৮ সালে এসে মুক্তি পাচ্ছে ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’। ২০০৬ সালের সেই সিনেমা ব্যবসায়িকভাবে সফল হয়েছিল। এই দুটি সিনেমা বিশেষ দুই অঞ্চলের ভাষায় নির্মাণ করা হয়েছে। এখন অপেক্ষার পালা ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ কতটা সফল হয় সেটি দেখার। ২০০৬ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত রোজার ঈদে মুক্তি পাওয়া সিনেমাগুলোর পরিসংখ্যানে দেখা যায় শাকিব খান অভিনীত সিনেমাগুলো সবচেয়ে বেশি ব্যবসা সফল হয়েছে।

২০০৭ সালে ‘তোমার জন্য মরতে পারি’, ২০০৮ সালে ‘এক টাকার বউ’, ২০০৯ সালে ‘মায়ের হাতে বেহেশতের চাবি’, ২০১০ সালে ‘নাম্বার ওয়ান শাকিব খান’, ২০১১ সালে ‘টাইগার নাম্বার ওয়ান’, ২০১২ সালে ‘খোদার পরে মা’, ২০১৩ সালে ‘মাই নেম ইজ খান’, ২০১৪ সালে ‘হিরো দ্য সুপারস্টার’, ২০১৫ সালে ‘লাভ ম্যারেজ’ শিরোনামের সিনেমাগুলো ব্যাবসায়িকভাবে সফল হয়। এসব সিনেমায় শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন অপু বিশ্বাস। ২০১৬ সালে যৌথ প্রযোজনার সিনেমা ‘শিকারী’ ব্যবসায়িকভাবে সফল হয়। এতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। ২০১৭ সালে যৌথ প্রযোজনার সিনেমা ‘নবাব’ ব্যসায়িকভাবে মোটামুটি ভালো গিয়েছে বলেই মত দিচ্ছেন চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্টরা। এতে শাকিব খানে বিপরীতে অভিনয় করেছেন ওপার বাংলার শুভশ্রী।

গত এগারো বছরের পরিসংখ্যানে দেখা যায় রোজার ঈদ শাকিব খানের দখলেই ছিলো। এবারও শাকিব খান অভিনীত ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’, ‘সুপার হিরো’, ‘পাঙ্কু জামাই’ তিনটি সিনেমা মুক্তির মিছিলে রয়েছে। উত্তম আকাশ পরিচালিত ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ সিনেমায় শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন শবনম বুবলী। শাপলা মিডিয়ার ব্যানারে নির্মিত এ সিনেমার ট্রেইলার ও গান ইউটিউবে ইতিমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে। এবং সেগুলো প্রশংসা কুড়িয়েছে। আশিকুর রহমান পরিচালিত ‘সুপার হিরো’ সিনেমায় শাকিব খানে বিপরীতে রয়েছেন শবনম বুবলী। সিনেমাটির শুটিং শুরু থেকেই বিভিন্ন কারণে সমালোচিত হয়েছে। শুটিং ফাঁসানো ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ তুলেছেন অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিনেফেক্ট এন্টারটেইনমেন্ট।

এরপর অস্ট্রেলিয়ায় অনুমতিবিহীন শুটিং করায় ‘নিপা এন্টারপ্রাইজ’ নামের একটি চলচ্চিত্র প্রযোজনা ও পরিবেশনা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় তথ্য মন্ত্রণালয়ে। এরপর সিনেমাটির মুক্তি নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়। অভিযোগের বিষয়টি স্বীকার করে সিনেমার প্রযোজক তাপসী ঠাকুর তথ্য মন্ত্রণালয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করে চিঠি দেন। এরপর তারা ছাড়পত্র পায়। সিনেমাটির শুটিং থেকে শুরু করে এর নির্মাতা আশিকুর রহমান ও শাকিব খানের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়। যদিও সেগুলো এখন অতীত।

এদিকে ‘পাঙ্কু জামাই’ সিনেমাটির শুটিং শেষ না করেই জোড়াতালি দিয়ে সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। মান্নান সরকার পরিচালিত এ সিনেমায় শাকিব-অপু জুটির সঙ্গে অভিনয় করেছেন পুষ্পিতা পপি। সিনেমাটির শুটিং শুরুর কয়েকদিন পরই চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস মিডিয়ার অন্তরালে চলে যান। দীর্ঘ বিরতির পর অপু বিশ্বাস সিনেমাটির কাজ করে দিলেও শাকিব খানের শিডিউল পাননি নির্মাতা। শাকিব খানকে ছাড়াই অপু বিশ্বাসের অংশের শুটিং শেষ করা হয়। এদিকে চিত্রনায়িকা পুষ্পিতা পপির অংশের সব কাজ শেষ করা হয়নি বলে দাবি করেছেন পুষ্পিতা নিজেই। যাই হোক, সকল বিতর্কের অবসান ঘটিয়ে আজ মুক্তি পেয়েছে সিনেমাগুলো। এখন অপেক্ষার পালা এবার ঈদে শাকিব খানকে দর্শক কীভাবে নেন।